শিরোনাম
সোমবার  ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং  |  ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ১৯শে সফর, ১৪৪৩ হিজরী

‘মানব ইতিহাসের সর্বশেষ যুদ্ধ লেগে যেতে পারে’!

রুশ সেনাবাহিনীর সাবেক একজন শীর্ষ জেনারেল বলেছেন, ব্রিটেনে একজন সাবেক রুশ গুপ্তচরের ওপর নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগের ঘটনা নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমের যুদ্ধ লেগে যেতে পারে এবং তা হবে সর্বশেষ যুদ্ধ।

লে. জে. ইয়েভগেনি বুজনিস্কি; যিনি বর্তমানে নিরাপত্তাবিষয়ক একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা সংস্থার প্রধান। তিনি বলেন, রাশিয়ার সঙ্গে পশ্চিমা দেশগুলোর সম্পর্ক এতটাই খারাপ হয়ে পড়েছে যে তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ার যথার্থ কারণ রয়েছে।

‘পরিণতি শীতল যুদ্ধের চেয়ে অনেক খারাপ হতে পারে, এবং ফলাফল খুব খুব খারাপ হতে পারে…মানব ইতিহাসের সর্বশেষ যুদ্ধ লেগে যেতে পারে।’

জেনারেল বুজনিস্কি বলেন, ‘দেয়ালে পিঠ ঠেকে যাওয়া রাশিয়া খুবই ভয়ঙ্কর।’

ইংল্যান্ডের সলসবেরি শহরে গত মাসে সাবেক স্বপক্ষত্যাগী এক সাবেক রুশ গুপ্তচর এবং তার মেয়েকে বিষাক্ত নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগে হত্যার চেষ্টার জন্য ব্রিটেন সরাসরি রাশিয়াকে দায়ী করে।

এরপর যুক্তরাষ্ট্র সহ ২০টিরও বেশি ইউরোপীয় দেশ থেকে একশরও বেশি রুশ কূটনীতিককে বহিষ্কার করা হয়। পাল্টা জবাবে রাশিয়াও সমান সংখ্যক পশ্চিমা কূটনীতিককে বহিষ্কার করেছে।

শুধু ব্রিটেন বা আমেরিকা নয়, সারা বিশ্বের বহু দেশই তো সলসবেরির ঘটনায় রাশিয়ার সংশ্লিষ্টতা রয়েছে বলে বিশ্বাস করে- বিবিসির এরকম প্রশ্নে জেনারেল বুজনিষ্কি বলেন, ‘আপনারা যখন বিশ্বের কথা বলেন, তখন আপনারা ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র এবং আর দু’ একটি দেশের কথা বোঝান।’

অন্যদিকে ব্রিটেনের সরকারি যে গবেষণাগারে (পোর্টন ডাউন ল্যাব) সলসবেরিতে প্রয়োগ করা নার্ভ গ্যাস পরীক্ষা করা হচ্ছিল, মঙ্গলবার তারা বলেছে, নভিচক নামে ওই বিষাক্ত গ্যাস যে রাশিয়া থেকে এসেছিল তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

দু’সপ্তাহ আগে ব্রিটেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, পোর্টন ডাউন ল্যাবের বিজ্ঞানীরা একশ’ ভাগ নিশ্চিত যে বিষাক্ত গ্যাস রাশিয়ায় তৈরি।

তবে মঙ্গলবার ল্যাবের প্রধান গ্যারি এইটকেনহেড বলেছেন, তারা বের করেছেন যে ওই নার্ভ এজেন্ট ছিল মিলিটারি গ্রেডের নভিচক। কিন্তু ‘আমরা এর সুনির্দিষ্ট সূত্র খুঁজে পাইনি।’

রাসায়নিক অস্ত্র সম্পর্কিত এই ল্যাবরেটরির বক্তব্যে একদিকে যেমন অস্বস্তিতে পড়েছে ব্রিটেন সরকার, সেই সঙ্গে রাশিয়া ব্রিটেনের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় তুলেছে। মঙ্গলবার রাতে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, বিশ্বের বিশটি দেশে নভিচক তৈরির ক্ষমতা রাখে।

অন্যদিকে রুশ উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যালেক্সান্ডার গ্রুশকো বলেছেন, ব্রিটেন এখন শক্তিধর একটি শত্রু খুঁজে বেড়াচ্ছে। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সলসবেরিতে রুশ সাবেক গুপ্তচরের ওপর গ্যাস প্রয়োগের ঘটনা হয়তো ব্রিটিশ গুপ্তচরদের কাজ।

তিনি বলেন, ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটিশ সরকার যে সমস্যায় পড়েছে, তা থেকে মানুষের নজর অন্যদিকে ঘোরাতেই হয়তো এই কাজ করা হয়েছে। তবে এই সন্দেহ উড়িয়ে দিয়েছেন ব্রিটেনের মন্ত্রীরা।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com