শুক্রবার  ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং  |  ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ২৬শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী

‌তিন নারী ভাষা সৈ‌নিকের বা‌ড়ি সম্প‌ত্তি বে‌দখল

ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগমের সম্পত্তি দখল করার অভিযোগ উঠেছে। ওই ভাষা সৈনিকের মৃত্যুর পর ওয়ারিশদের মধ্যে জমি বন্টন করে দেয়ার দায়িত্ব নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান নিজেই তা জবর দখল করে নেন। মৌলভী বাজার কুলাউড়া উপজেলায় তিন বোন ভাষা সৈ‌নিক। তা‌দের সম্প‌ত্তি বেদখল হ‌য়ে যা‌চ্ছে।

আজ মঙ্গলবার (১৯ অক্টাবর) দুপুরে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনে (ক্র্যাব) এক সংবাদ সন্মেলনে এসব অভিযোগ করেন ভাষা সৈনিক ছালেহা বেগমের মেয়ে আইনজীবি সৈয়দা ফেরদৌস আরা।

সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে সৈয়দা ফেরদৌস উল্লেখ করেন, ‘মায়ের উত্তরাধিকার সুত্রে পাওয়া সম্পত্তি ভাগ-বন্টন করে দেয়ার জন্য আমি ও আমার দুই ভাই সৈয়দ ওয়াকিল আহাদ ও জালাল মো: আজরফ ওই চেয়ারম্যানের বাড়িতে যাই। তিনি জমির কাগজপত্রের ফটোকপি দেখার কথা বলে আমাদের কাছ থ‌েকে নিয়ে নেন। পরে নিজের নামে জমির জাল দলিলসহ আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র তৈরি করে নিয়ে আসেন। এরপর টেবিলে পিস্তল রেখে আমাদের ওই কাগজে স্বাক্ষর করতে বলেন। এ সময় আমাদের ঘিরে রাখে তার অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা। আমি প্রতিবাদ করলে আমার মাথায় পিস্তল ঠেকায়। এরপর জোরপূর্বক সই-স্বাক্ষর রেখে আমাদের ঢাকাগামী একটি বাসে তুলে দেয়। আমরা প্র্রাণ বাঁচিয়ে কোনোমতে ঢাকায় আসি।’

সংবাদ সন্মেলনে ওই ভাষা সৈনিকের বড় মেয়ে সৈয়দা ফেরদৌস আরও অভিযোগ করেন, জোরপূর্বক বানানো দলিলে সই নেয়ার বিষয়ে কুলাউড়া থানায় অভিযোগ করতে গেলে পুলিশ তা গ্রহণতো করেইনি, উল্টাে উপজেলা চেয়ারম্যান সলমানকে জানিয়ে দিয়েছে। পরে বিষয়টি তৎকালীন (২০১৬) সংসদ সদস্য সায়রা মহসীনকে জানানো হলে তিনি ওই উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিষয়টি সুরাহার নির্দেশ দেন। এরপর উপজেলা চেয়ারম্যান কৌশলে এলাকার চিহ্নত সন্ত্রাসী জিহর আহমেদ ডলারের মাধ্যমে সেখানে একটি টিনশেড ঘর তৈরি করে খাবার হোটেল চালু করে।

সৈয়দা ফেরদৌস বলেন, ‘এরপর সন্ত্রাষীদের ভয়ে প্রাণ হারানোর শঙ্কায় সেখানে আর আমরা যেতে পারিনি। পুলিশ কোনো সাহায্য করেনি। কোথওে কোনো বিচার পাইনি।’

পরে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে তারা লিখিত অভিযোগ করেন। তবে এখনও ফিরে পাননি তাদের সম্পত্তি। তা এখনও ওই চেয়ারম্যানের কব্জায়ই রয়েছে।

সংবাদ সন্মেলনে সৈয়দা ফেরদৌসহ ছাড়াও ওই ভাষা সৈনিকের অন্য সন্তানরা উপস্থিত ছিলেন।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com