শুক্রবার  ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং  |  ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ২৬শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী

লেগ স্পিনার শাদাব দেখালেন, বাঁহাতি ব্যাটারের উইকেটও পাওয়া যায়

ক্রিকেটে প্রথাগত থিওরি অবশ্যই আছে। তবে সেই থিওরি সবসময় শতভাগ প্রয়োগ করতে অধিনায়ক বা ব্যাটার-বোলারদের ওপর কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে হয় বুদ্ধি দিয়ে। সবসময় থিওরি প্রয়োগ করে সাফল্য আসে না। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ যেমন গতকাল প্রথম ম্যাচে বাঁহাতি ব্যাটারের বিপক্ষে লেগ স্পিনার আমিনুলকে বোলিং দেননি। অথচ, আজ দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানি লেগ  স্পিনার শাদাব খান দেখালেন থিওরির দুর্বলতা।

প্রথম ম্যাচে ১৯তম ওভার পর্যন্ত বোলিংয়ে আনা হয়নি আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে। শেষ ওভারে যখন তাকে আনা হয়, তখন জয়ের জন্য পাকিস্তানের চাই মাত্র ২ রান। আমিনুলকে কেন ১৯ ওভার পর্যন্ত বল দেওয়া হয়নি, সেটার ব্যাখ্যায় ম্যাচ শেষে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘পরিকল্পনা ছিল বোলিং করানোর। পরে যেহেতু দুটি বাঁহাতি ব্যাটার ছিল, তাই আমাকে বোলিং করতে হয়।’ উল্লেখ্য, তখন ক্রিজে ছিলেন  দুই বাঁহাতি ব্যাটার ফখর জামান ও খুশদিল শাহ।

অন্যদিকে আজ পাকিস্তানের লেগ স্পিনার শাদাব খান ৪ ওভার বল করে ২২ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট। মজার ব্যাপার হলো, দুই উইকেটই বাঁহাতি ব্যাটারের। নিজের দ্বিতীয় ওভারে ফিরিয়ে দেন বাঁ-হাতি ব্যাটার আফিফ হোসেন ধ্রুবকে। শাদাবের লেগস্পিনে স্কুপ করতে গিয়ে উইকেটরক্ষকের গ্লাভস বন্দী হয়ে সাজঘরে ফেরেন বাঁ-হাতি আফিফ। তার দ্বিতীয় শিকার হন আরেক বাঁহাতি নাজমুল হোসেন শান্ত। চোখের সামনে শাদাবের এই সাফল্য দেখে মাহমুদউল্লাহ কি মুখস্ত ক্যাপ্টেন্সি থেকে বেরিয়ে আসবেন?

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com