মঙ্গলবার  ১৮ই মে, ২০২১ ইং  |  ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ৫ই শাওয়াল, ১৪৪২ হিজরী

রোজায় ত্বকের যত্ন

রমজানে একটা দীর্ঘ সময় পানাহার থেকে বিরত থাকা হয়। এতে করে শরীরের পাশাপাশি ত্বকের ওপরেও প্রভাব পড়ে। সারাদিন পানি না পাওয়ার ফলে নিষ্প্রাণ হয়ে যায় ত্বক, সে সঙ্গে চেহারায় ক্লান্তির ছাপ পড়ে। তবে রোজা রাখলে যে ত্বক রুক্ষ হবেই বিষয়টি এমন না। কিভাবে রমজানে ত্বক সতেজ রাখা যায় এ বিষয়ে জানিয়েছেন দুবাই মেডিকেয়ার হাসপাতালের স্কিন বিশেষজ্ঞ ইমান খতিব ও দুবাই লন্ডন ক্লিনিকের উমেশ নিহালিনি।

চিকিৎসক ইমান জানিয়েছেন, রোজায় হাইড্রেশন অভাবের কারণে ত্বক শুকনো, নিস্তেজ এবং এমনকি রিঙ্কেলগুলো বাড়তে পারে। বেশিমাত্রায় পানি পান করা ও স্বাস্থ্যকর ত্বকের মধ্যে যোগসূত্র রয়েছে। শরীর হাইড্রেট করার জন্য যেমন পানি জরুরি তেমনি ত্বকের কোষগুলো সঠিকভাবে কাজ করার জন্য পানির প্রয়োজন।

এদিকে চিকিৎসক নিহালিনি রাতে দুই লিটার পানি খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তবে দুজনই রমজানে স্কিন কোমল হওয়ার জন্য একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের কথা বলেছেন। ত্বকের জন্য উপযুক্ত এসপিএফ সমৃদ্ধ ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে যাতে ভিটামিন সি ও ই রয়েছে। সেই সঙ্গে রমজানে ঠোঁট ফাটার সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে লিপবাম ব্যবহারের কথা বলা হয়েছে। ভিটামিন ই সমৃদ্ধ লিম বামকে বেছে নিতে হবে।

এছাড়া খাবারও স্কিনের ওপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। তেলে ভাজা খাবার, প্রসেসড সুগার বাদ দিতে হবে যা ব্রণের মতো সমস্যার সৃষ্টি করে। লবণাক্ত খাবার খাওয়াও কমাতে হবে যা শরীর থেকে পানি অপসারণ করে। প্রতিদিনের খাবার তালিকায় শাকসবজি ও ফল রাখতে হবে।

রমজানের প্রথম কয়েকটি দিন যখন শরীর থেকে টক্সিন দূর করার প্রক্রিয়া শুরু করে তখন রক্তের কোষগুলো সক্রিয় হওয়ার সাথে সাথে শরীরের অন্যান্য অঙ্গগুলোর সাথে ত্বকও প্রাণ ফিরে পেতে শুরু করে। এরপর কিছুদিন পর ত্বকের লাবণ্য ফিরে আসে, ত্বক উজ্জ্বল হতে শুরু করে। রোজা রাখার ফলে শরীরে পিউরিন এবং পাইরিমিডিন বৃদ্ধি পায়, যার ফলে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের মাত্রা বৃদ্ধি পায় যা ত্বকের সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী। তবে বেশি মাত্রায় চিনি খেলে স্কিন শুষ্ক হয়ে যেতে পারে সেই সাথে কোলাজেনের ক্ষতিও হতে পারে।
সূত্র : আরব নিউজ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com