শিরোনাম
সোমবার  ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং  |  ১২ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ১৯শে সফর, ১৪৪৩ হিজরী

যুক্তরাষ্ট্রে চলে গেলেন মিশা সওদাগর

যুক্তরাষ্ট্রে চলে গেলেন মিশা সওদাগর। গত ৭ সেপ্টেম্বর ভালোভাবেই সেখানে পৌঁছেছেন বলে জানালেন তিনি।

মিশা দেশে থাকলেও আগে থেকেই তার স্ত্রী মিতা এবং দুই পুত্রসন্তান হাসান মোহাম্মদ ওয়ালিদ ও ওয়াইজ করণী যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। মূলত স্ত্রী ও সন্তানদের সঙ্গে দেখা করতেই এই জনপ্রিয় খল নায়কের আমেরিকায় যাওয়া। মিশা যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব পেয়েছেন বলেও জানা গেছে। দেশে থাকলেও আসা-যাওয়া চলে তাঁর।

সম্প্রতি শাহিন সুমন পরিচালিত তারকাবহুল ওয়েব সিরিজ ‘মাফিয়া’র  শুটিংয়ে দেখা যায় শীর্ষ এই খল অভিনেতাকে।শুটিং শেষ করেই বিমানে ওঠেন।

মিশা সওদাগর বলেন, ‘পরিবারকে সময় দিতে কয়েক মাস আগে যাওয়ার কথা থাকলেও সিনেমার শুটিংয়ের ব্যস্ততার কারণে যেতে পারিনি। শুটিংয়ের ব্যস্ততা আপাতত কম আর স্ত্রী ও সন্তানদের খুব বেশি মিস করছিলাম। তাই একটু ফাঁকা সময় পেয়ে চলে আসলাম তাদের কাছে। তাদের সঙ্গে এখানে খুব সুন্দর সময় কাটছে আমার। শান্তি লাগছে মনে।

তিনি আরো বলেন, “এবার অনেক দিন থাকার ইচ্ছা আছে। দেশে ফেরার খুব একটা তাড়া নেই। কমপক্ষে মাসখানেক তো থাকবই। এবার ঢাকায় ফিরেই মোহাম্মদ ইকবালের ‘রিভেঞ্জ’, সোলায়মান আলী লেবুর ‘প্রেম-প্রীতির বন্ধন’ ছবির কাজ করব, দুটি সিনেমার বাকি অংশের শুটিং শেষ করার ইচ্ছা আছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকটি নতুন সিনেমার কাজ নিয়ে কথা হচ্ছে। সেগুলো চূড়ান্ত হলে তখন জানাতে পারব আশা করি।

এখন পর্যন্ত মিশা সওদাগর আট শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। বাংলা চলচ্চিত্রে খলনায়ক হিসেবে তিনি নিজেকে নিয়ে গেছেন এক অতুলনীয় উচ্চতায়। কয়েক বছর ধরে এ অভিনেতার সর্বাধিকসংখ্যক সিনেমা মুক্তি পাচ্ছে। বর্তমানেও তার হাতে রয়েছে একাধিক সিনেমার কাজ। আমেরিকা থেকে দেশে ফিরেই চলচ্চিত্রের কাজে নিয়মিত হবেন। তিনি পরপর দুবার চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। এখন সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

১৯৮৬ সালে বিএফডিসির নতুন মুখের সন্ধানে প্রতিযোগিতায় অংশ নেন তিনি। তখন তার বয়স ছিল ২০ বছর। তার তিন বছরের মাথায় পরিচালক ছটকু আহম্মেদ পরিচালিত ‘চেতনা’ সিনেমার মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্রে কাজ শুরু করেন। তবে এ চলচ্চিত্রে নায়কের চরিত্রে অভিনয় করেন এ অভিনেতা।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com