শুক্রবার  ২২শে অক্টোবর, ২০২১ ইং  |  ৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী

ভারত থেকে শিগগিরই টিকা রপ্তানির আশা

প্রায় ছয় মাস পর আবারও করোনা মোকাবেলায় টিকা রপ্তানি শুরু করার বিষয়টি বিবেচনা করছে ভারত। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স গতকাল বুধবার এই খবর দিয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে বড় টিকা উৎপাদনকারী রাষ্ট্র ভারত গত এপ্রিল মাসে অভ্যন্তরীণ করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় টিকা রপ্তানি বন্ধ করে দেয়। এতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে টিকাদান পরিকল্পনায় প্রভাব পড়ে। বাংলাদেশ তিন কোটি ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা কিনতে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চুক্তি করেছিল। রপ্তানি বন্ধের আগে গত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে ভারত থেকে ৭০ লাখ ডোজ টিকা এসেছিল। চুক্তির আওতায় দুই কোটি ৩০ লাখ ডোজ টিকা ভারতের কাছ থেকে পাওয়ার অপেক্ষায় আছে বাংলাদেশ। চুক্তির বাইরে ভারতে তিন দফায় বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে ৩৩ লাখ ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকা দিয়েছে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ভারত বিশ্বের ৯৫টি দেশকে উপহার এবং রপ্তানি হিসেবে ছয় কোটি ৬৩ লাখ ৬৯ হাজার ৮০০ ডোজ টিকা পাঠিয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স ভারতের আবারও টিকা রপ্তানি শুরুর তথ্য দেওয়ার আগে কূটনৈতিক পর্যায় থেকেও এমন ইঙ্গিত মিলেছে। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্মুদ গত সপ্তাহে নয়াদিল্লি সফরের সময়ও কভিড টিকার বিষয়ে ভারতের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলেছেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তা ব্রুস আইলোয়ার্ড গত মঙ্গলবার ব্রিফিংয়ে বলেছেন, ‘এই বছরই টিকা সরবরাহ আবারও শুরু হবে বলে আমাদের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি, এই বছরের শেষের দিকে নয় বরং আরো আগে, আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে টিকার সরবরাহ শুরু হবে বলে আশ্বাস পেতে পারি।’

এদিকে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, বন্ধুত্বের নিদর্শন হিসেবে বুলগেরিয়া সরকার বাংলাদেশকে দুই লাখ ৭০ হাজার ডোজ অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা দিয়েছে। টার্কিশ এয়ারলাইনসের একটি কার্গো বিমানে গতকাল ওই টিকার চালান ঢাকায় পৌঁছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা টিকার চালান গ্রহণ করেন।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com