সোমবার  ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং  |  ৩রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ  |  ২০শে রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরী

ব্রাজিল থাকল আর্জেন্টিনা গেল

আজ-কালের মধ্যেই হুঙ্কার দিলেন বলে ডিয়েগো ম্যারাডোনা! হোক অনূর্ধ্ব-২৩ দল, তবু ফিফার র্যাংকিংয়ে শীর্ষে থাকার জাত্যভিমান তো তাঁর দেশেরই। অথচ সে অহংকারই কিনা গড়াগড়ি খেল অলিম্পিকে, র্যাংকিংয়ের ৮১ নম্বরে থাকা হন্ডুরাসের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে আলবিসেলেস্তেদের। একই দিনে দপ করে জ্বলে উঠেছে ফুটবলে ব্রাজিলের প্রথম অলিম্পিক সোনা জয়ের স্বপ্নও। ডেনমার্ককে ৪-০ গোলে হারিয়ে উঠে গেছে অলিম্পিকের কোয়ার্টার ফাইনালে। সেখানে স্বাগতিকদের জন্য অপেক্ষা করে আছে কলম্বিয়া।

হন্ডুরাসকে হারালেই কোয়ার্টার ফাইনালের দরজা খুলে যেত ২০০৪ ও ২০০৮ সালের সোনাজয়ী আর্জেন্টিনার সামনে। কিন্তু জিতবে কি, উল্টো ১৫ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টি কাজে লাগিয়ে এগিয়ে গিয়েছিল হন্ডুরাসই। ইনজুরি টাইমে মৌরিসিও মার্তিনেজের গোলে কোনো রকমে হার এড়িয়েছে আর্জেন্টিনা, তবে গোল গড়ে ছিটকে গেছে অলিম্পিক থেকে।

টানা তিনটি বড় আসরের ফাইনালে হারের পর হতোদ্যম আর্জেন্টাইনদের বুকে শেল হয়ে বিঁধেছে লিওনেল মেসির আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর। এর পরিপ্রেক্ষিতে জাতীয় দলের কোচ পদ থেকে জেরার্দো মার্তিনোর পদত্যাগে অলিম্পিক শুরুর মাত্র সপ্তাহ দুয়েক আগে নতুন কোচ নিয়োগ দেয় আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। সেই তিনি, হুলিও ওলার্তিকোয়েশিয়া ছিলেন মহিলা দলের কোচ। চুক্তিবদ্ধদের মধ্যে টিকেছিলেন একমাত্র তিনিই। তাই হুলিও-ই পান অলিম্পিক দলের দায়িত্ব। এত অল্প সময়ে দলটির সঙ্গে বোঝাপড়া এমনিতেই কঠিন, তার ওপর অলিম্পিক ছকে থাকা তিন ফুটবলারকে ক্লাব না ছাড়ায় আরো বেকায়দায় পড়েন নতুন কোচ। হন্ডুরাস বাধাও পার হতে না পারা সব সমস্যার যোগফলই।

ব্রাসিলিয়ায় আর্জেন্টিনার স্বপ্নভঙ্গের ঘণ্টা দুয়েক পর সালভাদরে স্বপ্নভঙ্গের আশঙ্কা নিয়েই নেমেছিল ব্রাজিল। আগের দুই ম্যাচে যা পারফরম্যান্স, তাতে নেইমারদের ডেনমার্ক বাধা পেরোনো নিয়ে ঘোর সংশয় ছিল। তবে সে সংশয় মুছে গেছে স্বাগতিকদের বড় ব্যবধানের জয়ে। আগের দুই ম্যাচের তুলনায় কাল অপেক্ষাকৃত ভালো খেলেছে ব্রাজিল। শুরু থেকেই চড়াও হয়ে খেলা স্বাগতিকদের পক্ষে প্রথম গোলটি করেছেন গ্যাব্রিয়েল বারবোসা, ‘বাতিগোল’ বলে যাঁকে এখন ডাকে ব্রাজিলিয়ানরা। এরপর একে একে গোলের ব্যবধান বাড়িয়েছেন সদ্যই ম্যানচেস্টার সিটিতে নাম লেখানো গ্যাব্রিয়েল জেসুস ও লুয়ান। শেষ গোলটা গ্যাবিগোলের শটে ডেনিশ ডিফেন্ডারের পায়ে লেগে। তবে এই একটি জয়েই ব্রাজিলের বহু আরাধ্য অলিম্পিক সোনা জয়ের নিশ্চয়তা নেই। নাইজেরিয়াকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করা কলম্বিয়া যথেষ্টই শক্তিশালী দল। ওদিকে ফিজির বিপক্ষে গোলোৎসব করেছে জার্মানি। ১০-০ গোলের জয়ে নিলস পিটারসেন একাই করেছেন ৫ গোল। হ্যাটট্রিক করেছেন ম্যাক্স মেইলারও। এতে গ্রুপ রানার্স-আপ হওয়া জার্মানির কোয়ার্টার ফাইনালে দেখা হবে গতকাল আলজেরিয়ার সঙ্গে ড্র করেও আর্জেন্টিনা গ্রুপের শীর্ষ দল পর্তুগিজদের সঙ্গে।

আর্জেন্টিনা অবশ্য একা নয়, চূড়ান্ত ভরাডুবি হয়েছে মেক্সিকোরও। গত অলিম্পিকের সোনাজয়ী দলটি যে এবার ছিটকে গেল গ্রুপ পর্ব থেকেই। এবারের অলিম্পিক ফুটবলে এখনো এশিয়ার পতাকা তুলে ধরে আছে দক্ষিণ কোরিয়া। কোয়ার্টার ফাইনালের প্রতিপক্ষ হন্ডুরাস যখন, তখন আরো দূরের পথ দেখতেই পারে কোরিয়া। শেষ আটের অন্য ম্যাচে মুখোমুখি হবে ডেনমার্ক ও নাইজেরিয়া। আফ্রিকার সুপার ঈগলরা শেষ ম্যাচে হেরেও উঠে গেছে কোয়ার্টার ফাইনালে। অথচ সুইডেনের বিপক্ষে ১-০ ব্যবধানে জিতেও দেশে ফেরার প্লেন ধরতে হচ্ছে জাপানকে।

তবে আর্জেন্টিনা না থাকায় ফুটবলের সব আকর্ষণই নেইমারের ব্রাজিলকে ঘিরে। প্রথম দুটি ম্যাচে হতাশ করলেও ডেনমার্কের বিপক্ষে কিছুটা ভালো খেলেছেন, তৃতীয় গোলটায় অ্যাসিস্ট তাঁরই। এতে নেইমারের জন্য পুরনো প্রেম ফিরে আসার কথা ব্রাজিলিয়ানদের মনে। আসছে কি? মিডিয়া সেন্টারের বড় পর্দার টিভিতে ব্রাজিল-ডেনমার্ক ম্যাচটি নিয়ে ব্রাজিলিয়ানদের অভাবিত অনাগ্রহে কিন্তু সে ইঙ্গিত নেই। হতে পারে, প্রথমবার দেশকে সোনা না জেতানো পর্যন্ত নেইমারকে নিয়ে আদিখ্যেতা দেখাতে চাচ্ছেন না তারা।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com