রবিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং  |  ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  |  ১লা সফর, ১৪৪২ হিজরী

পুরোপুরি বাস্তবায়িত হয়নি কোনো প্রণোদনা প্যাকেজ

নভেল করোনাভাইরাসের প্রভাবে দেশের অর্থনৈতিক ক্ষতি মোকাবেলায় সরকার ১৯টি প্যাকেজে এক লাখ ছয় হাজার ১১৭ কোটি টাকার আর্থিক প্রণোদনা ঘোষণা করে। এর মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক সরাসরি আটটি প্যাকেজের সঙ্গে যুক্ত। এগুলোর অর্থের পরিমাণ ৭৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। কিন্তু আগস্ট শেষে এসব প্যাকেজের ঋণ পুরোপুরি বিতরণ করতে পারেনি ব্যাংকগুলো। বেশির ভাগ প্যাকেজের বিতরণের হার হতাশাজনক। দুটি প্যাকেজের অর্থ বিতরণই হয়নি। এর একটি আবার গঠিতই হয়নি।

গত সোমবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো প্রণোদনা প্যাকেজ বাস্তবায়ন সংক্রান্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি প্রতিবেদনে এমন চিত্রই উঠে এসেছে।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, প্রণোদনা প্যাকেজের বর্তমান অবস্থা জানাতে বাংলাদেশ ব্যাংককে গত মাসে একটি চিঠি দিয়েছিল মন্ত্রণালয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ব্যাংক একটি প্রতিবেদন পাঠিয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক যেসব প্যাকেজে সরাসরি যুক্ত সেগুলোর ৭৩ হাজার ৫০০ কোটি টাকার মধ্যে বিভিন্ন ব্যাংক মাত্র ৩০ হাজার কোটি বিতরণ করেছে।

ক্ষুদ্র (কুটির শিল্পসহ) ও মাঝারি শিল্পের জন্য ঋণ : করোনাকালে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পগুলোর। এ খাতকে সুরক্ষা দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেন। ব্যাংক-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে এই ঋণ বিতরণের কথা রয়েছে। এই ঋণ পেতে ট্রেড লাইসেন্স, মালিকানার ধরনের সনদসহ বিভিন্ন ধরনের কাগজপত্র লাগে। ফলে অনেক প্রতিষ্ঠানই ঋণের জন্য আবেদন করতে পারছে না। আবার ব্যাংকও জামানত ছাড়া ঋণ দেবে না। কারণ ঋণের টাকা আদায় না হলে এর দায় ব্যাংকগুলোকে নিতে হবে। ফলে আগস্ট পর্যন্ত ব্যাংকগুলো ২০ হাজার কোটি টাকার মধ্যে মাত্র তিন হাজার ৭০০ কোটি বিতরণ করতে পেরেছে।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com