বুধবার  ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ  |  ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ  |  ১৬ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

নিষেধাজ্ঞা ওঠার পর আগামীকাল প্রথমবার ভারত যাচ্ছেন ফেরদৌস

দুই বাংলায় সমান জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস আহমেদ। বাংলাদেশের পাশাপাশি কলকাতায় একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। পর্দার পাশাপাশি সেখানকার স্টেজ শোতেও বেশ কদর আছে ফেরদৌসের। কিন্তু ২০১৯ সালে পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিয়ে বিপাকে পড়েন ‘হঠাৎ বৃষ্টি’খ্যাত অভিনেতা।ভারত সরকার তাঁর সেই দেশে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে। ফলে গত তিন বছর আর ছবির শুটিং তো দূরে থাক অন্য কোনো দরকারেও ভারতে যেতে পারেননি।

kalerkanthoআগে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে সড়কপথে গেলেও এবারই প্রথম নেত্রকোনা সীমান্ত দিয়ে ভারতে ঢুকবেন ফেরদৌস।

অপেক্ষায় ছিলেন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার। অবশেষে গত বছর ৬ নভেম্বর ভারত সরকার দেশটিতে তাঁর প্রবেশাধিকার আবার ফিরিয়ে দেয়। তাই এখন ভারতে যেতে আর কোনো বাধা নেই ফেরদৌসের। নিষেধাজ্ঞা ওঠার পর আগামীকাল প্রথম ভারতে পাড়ি দিতে যাচ্ছেন এই অভিনেতা। প্রথমবারের মতো নেত্রকোনা সংলগ্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতে প্রবেশ করবেন এই অভিনেতা। ২৩ ফেব্রুয়ারি আগরতলায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে অংশ নেবেন তিনি। উত্সবে ফেরদৌসের সঙ্গে আরো থাকবেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ ও অভিনেত্রী অপু বিশ্বাস। ফেরদৌস বলেন, ‘অনেক দিন পর আমার দ্বিতীয় বাড়ি যেতে পারছি ভেবে ভালো লাগছে। অনেকগুলো কাজের কথা চূড়ান্ত হয়ে আছে। তবে দুর্ভাগ্যবশত এবার কলকাতা যেতে পারব না। মোট পাঁচদিন থাকার পরিকল্পনা করেছি। আগরতলা, গোহাটি, শিলংসহ আশেপাশের কয়েকটি স্থানে যেতে হবে। আমাদের সঙ্গে থাকবেন মন্ত্রীসহ সরকারি কর্মকর্তারা। তাঁদের রেখে তো আর নিজের কাজে যাওয়া যায় না। ’

তিন বছর ভারতে যেতে না পারায় খুবই মানসিক যন্ত্রনায় ছিলেন ফেরদৌস। এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশেই আমার কাজের ক্ষেত্র। এমনও হয়েছে অনেক নির্মাতা আমাকে ফোন দিয়ে বলেছেন, যে কোনো উপায়ে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে। কারণ তাঁরা যে গল্পগুলো বাছাই করেছে সেগুলোর প্রধান চরিত্র আমি ছাড়া তারা ভাবতে পারছেন না। তখন খুব কষ্ট লাগতো। অবশেষে এবার কষ্টটা লাঘব হলো। আশা করছি, এই বছর ভারতের বেশ কয়েকটি ছবিতে কাজ করব। ’

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com