মঙ্গলবার  ২০শে এপ্রিল, ২০২১ ইং  |  ৭ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ৭ই রমযান, ১৪৪২ হিজরী

নির্বাচনী প্রচারণায় বাজারে শ্রাবন্তী

শ্রাবন্তী প্রচারণার জন্য রীতিমতো হাঁটে-বাজারে নেমে পড়েছেন। বুধবার নির্বাচনী প্রচারণায় নেমে পড়েন। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে কলকাতার বেহালা পশ্চিম কেন্দ্র থেকে লড়ছেন নায়িকা শ্রাবন্তী।

শ্রাবন্তী ফেসবুকে বেশ কিছু ছবি পোস্ট করে লিখেছেন,  ‘আজ সন্ধ্যায় ১৩০ নম্বর ওয়ার্ডে জনসংযোগ কর্মসূচিতে।  মানুষের স্বতঃস্ফূর্ততা বলে দিচ্ছে আগামী দিনের ফলাফল কী হতে চলেছে।’

এর আগে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর পরই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তিনি দিয়েছেন বেশ ঝাঁঝালো রাজনৈতিক বক্তব্য।

kalerkantho

ইনস্টাগ্রামে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার ছবি পোস্ট করে ক্যাপশনে শ্রাবন্তী লেখেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজির নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গকে দুর্নীতি, তোলাবাজিমুক্ত করে, বেহালা পশ্চিমে শুধু ক্লাবে ক্লাবে ফুর্তি করার দান-খয়রাতি নয়, সামাজিক উন্নয়নের সঙ্গে সোনার বাংলার সংকল্প নিয়ে বেহালা পশ্চিমে সুখে-দুঃখে সব সময় পাশে দাঁড়ানোর শপথ নিয়ে আজ মনোনয়নপত্র জমা দিলাম।’

তার এই পোস্টে লাইকের সংখ্যা ১৭ হাজারেরও বেশি। লাইক দিয়েছেন বিরোধীপক্ষের রাজনীতিবিদ-অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী, নুসরাত জাহান, কৌশানী মুখার্জিরা। প্রথম দুজন তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদ সদস্য। কৌশানী আগামী নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের প্রার্থী।

kalerkantho

একসময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মঞ্চে দেখা যেত শ্রাবন্তীকে। তার এই পরিবর্তনে সমর্থন জানিয়েছেন নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈনও। তবে পশ্চিমবঙ্গের এই রাজনৈতিক বিরোধিতা শুধু রাজনীতির মাঠেই সীমাবদ্ধ। পেশাগত দিক দিয়ে কোনো প্রভাব পড়েনি। প্রার্থী হিসেবে রাজনৈতিক দলে নাম লেখানোর পর থেকেই এ কথা জানিয়েছিলেন উভয় দলের তারকা প্রার্থীরা। সেই অবস্থান থেকেই যশ দাশগুপ্তকে অনলাইনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তারকা সংসদ সদস্য দেব। মিমি ছুটি কাটিয়ে এসেছেন বিজেপি প্রার্থী পার্নো মিত্রের সঙ্গে।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com