শনিবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং  |  ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  |  ২৯শে মুহাররম, ১৪৪২ হিজরী

তাদের বল কুড়ানো মনে করায় পাড়ার ক্রিকেটের কথা

পাড়ার ছোট্ট মাঠে ক্রিকেট খেলা হচ্ছে। মাঠের পাশে ঝোপঝাড়। সুতরাং খেলায় আইন করা হলো যে, ঝোপে বল মারলে তাকে আউট ঘোষণা করা হবে। সেইসঙ্গে ওই বল আউট হওয়া ব্যাটসম্যানকেই খুঁজে বের করতে হবে। বাংলাদেশের আনাচে কানাচে বহু জায়গায় এই নিয়মে খেলা চলে। অর্থাৎ ক্রিকেটারদের গিয়ে বল খুঁজে আনতে হয়। এই অবস্থায় যে এবার অজি ক্রিকেটারদের পড়তে হবে, তা কে জানত? মিচেল মার্শ যেন সবাইকে ফিরিয়ে নিয়ে গেলেন শৈশবে।

করোনা আবহে স্টেডিয়ামে দর্শকহীন স্টেডিয়াম ক্রিকেটারদের জন্য দুর্বিসহ হয়ে উঠছে। ব্যাটসম্যানেরা গ্যালারিতে ছক্কা হাঁকালে বল খুঁজতে যেতে হচ্ছে ফিল্ডারদের। এর আগে এই কাজটা দর্শকরাই করে দিতেন। শুক্রবার ম্যাঞ্চেস্টারে ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার ম্যাচে এমনই ঘটনা দেখা গেছে। বাউন্ডারি টপকে স্টেডিয়ামের পার্কিং থেকে বল কুড়িয়ে আনতে হয়েছে মিচেল মার্শকে। যার ছবি গত কয়েকদিন ধরেই সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল।

ইংল্যান্ড ইনিংসের তখন ২৭তম ওভার। স্ট্রাইকিং প্রান্তে মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান স্যাম বিলিংস। অজি ফাস্ট বোলার প্যাট কামিন্সের লাফিয়ে ওঠা একটি বল বিলিংসের ব্যাটের কানায় লেগে ফাইন লেগের উপর দিয়ে বাউন্ডারির বাইরে গিয়ে পড়ে। এক ড্রপ খেয়ে চলে যায় সীমানা পেরিয়ে স্টেডিয়ামের পার্কিং লটে। কিন্তু দর্শকশূন্য আবহে পার্কিং থেকে সেই বল মাঠে ফেরত পাঠানোর মতো কেউ ছিলেন না। সব দেখেশুনে দেরি না করে বাউন্ডারি লাইনে ফিল্ডিংরত অবস্থায় থাকা মিচেল মার্শ বাউন্ডারি টপকে পৌঁছে যান পার্কিং লটে এবং সেখান থেকে বল কুড়িয়ে আনেন।

করোনাকালে ইংল্যান্ডে চলমান একের পর এক আন্তর্জাতিক সিরিজে একাধিকবার এমন বল খোঁজার ঘটনা দেখা গেছে। উল্লেখ্য, ম্যাচ শেষে স্যাম বিলিংস বনে যান ‘ট্র্যাজিক হিরো’। তার ১১০ বলে ১১৮ রানের ইনিংস ব্যর্থ করে ম্যাচ জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া। বিধ্বংসী ম্যাক্সওয়েলের ৫৯ বলে ৭৭ রানের ঝড়ে উড়ে যায় বিলিংসের সেঞ্চুরি।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com