সোমবার  ২রা আগস্ট, ২০২১ ইং  |  ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ২২শে জিলহজ্জ, ১৪৪২ হিজরী

চার ফাইনালে ব্যর্থ আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনার ভাগ্যে বিগত ২৮ বছরেও কোনো ট্রফি জুটেনি, ১৬ বছর ধরে প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে উল্লেখ্যযোগ্য তেমন জয় নেই। এছাড়া ক্যারিয়ারের অন্তিমলগ্নে থাকা লিওনেল মেসিও দেশের জার্সিতে কোনো শিরোপা ঘরে তুলতে পারেননি। নিজ দেশের হয়ে ১৫ বছরের ক্যারিয়ারে ৪টি টুর্নামেন্টে ফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করলেও প্রতিবারই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন লিও।

এর মধ্যে একটি বিশ্বকাপ ও তিনটি কোপা আমেরিকার ফাইনাল খেলার সুযোগ পেলেও কোনোটিতেই গোল করতে পারেননি মেসি। আর্জেন্টিনার হয়ে খেলা এই চারটি আসরের প্রতিটি ফাইনালেই ব্যর্থ হয়েছেন মেসি।

রেকর্ড বলছে, মেসির প্রথম ফাইনালে ২০০৭ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে ভেনিজুয়েলার মাটিতে মোটেও দুর্বল ছিল না আর্জেন্টিনার দলটি। মেসি-তেভেজ-রিকুয়েলমে-আয়ালার মত খেলোয়াড় থাকার পরও ৪ মিনিটেই ব্যাপ্টিস্টার গোলে লিড নেয় ব্রাজিল। আয়ালার আত্মঘাতী আর দানি আলভেজের আরেক গোলে ৩-০ তে জয় পায় ব্রাজিল। এরপর মেসির দ্বিতীয় ফাইনালে ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনালে ১১৩ মিনিটে মারিও গোটজের গোল বুক ভেঙ্গে দেয় আর্জেন্টিনার সমর্থকদের। মারাকানার সেই ফাইনালে হিগুয়েইনের অবিশ্বাস্য এক মিস শিরোপা জিততে দেয়নি মেসির দলকে।

পরে তৃতীয়বার কোপার ফাইনালে ওঠে আর্জেন্টিনা ও চিলি। আর প্রথমবার শিরোপা ঘরে তোলে ফাইনাল টাইব্রেকারে জিতে। টাইব্রেকারে ৪-১ গোলে হেরে ২০১৫ সালে ফাইনালে পরাজয়ের হ্যাটট্রিক পূরণ হয় এল এম টেনের। কোপার শতবর্ষের আসরে বছর না ঘুরতেই আবার মেসির চতুর্থ ফাইনালে দেখা হয় আর্জেন্টিনা ও চিলির। আবারও গোল বন্ধ্যাত্ব, মেসির দলের হয়ে গোল বের করতে পারেনি কেউ। ২০১৬ সালে এসে আরো একবার ক্লদিও ব্রাভোর কাছে হারে মেসির আর্জেন্টিনা। টাইব্রেকারে চিলির কাছে ৪-২ গোলে হেরে ফাইনালে চতুর্থ হার দেখেন মেসি।

উল্লেখ্য, ক্লাব ফুটবলে বেশ কিছু শিরোপা উঁচু করে তোলার সুযোগ পাওয়ার পাশাপাশি নিজের নামের পাশে বিভিন্ন রেকর্ডের মালিক হয়েছেন লিওনেল মেসি। তবে নিজ দেশ আর্জেন্টিনার হয়ে বরাবরই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছেন মেসি।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com