রবিবার  ২৪শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং  |  ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  |  ১০ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী

গ্রাহকের হিসাবে সাড়ে ৪ শতাংশের বেশি সুদ আরোপ করা যাবে না

সরকার ঘোষিত বড় শিল্প ও সেবা খাতের প্রণোদনা প্যাকেজের আওতায় বিতরণ করা ঋণের বিপরীতে সুদ আরোপের নতুন নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, বিতরণ করা ঋণের বিপরীতে শুধু গ্রাহক কর্তৃক প্রদেয় অংশই আরোপ করা যাবে। অবশিষ্ট অংশ পৃথক হিসাবে সংরক্ষণ করতে হবে। আজ মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত সার্কুলার জারি করা হয়।

নভেল করোনাভাইরানের প্রাদুর্ভাবের কারণে বাংলাদেশে সম্ভাব্য অর্থনৈতিক প্রভাব মোকাবেলায় স্বল্প সুদে ঋণ সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে গত ৫ এপ্রিল ক্ষতিগ্রস্ত বড় শিল্প ও সেবা খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য চলতি মূলধন ঋণ সুবিধা দিতে ৩০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরবর্তীতে সচল রপ্তানীমুখি শিল্প-প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারীদের জুলাই মাসের বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য ৩০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা প্যাকেজটি ৩ হাজার কোটি টাকা বৃদ্ধি করে ৩৩ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়। এর পর গত ২৯ অক্টোবর আর্থিক সহায়তার এ প্যাকেজটি ৩৩ হাজার কোটি টাকা হতে বৃদ্ধি করে ৪০ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত করা হয়েছে। বাড়তি এই ৭ হাজার কোটি টাকা বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাংলাদেশ রপ্তানী প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেপজা) এবং বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ-তে অবস্থিত ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ টাইপ শিল্প প্রতিষ্ঠানের চলতি মূলধন হিসেবে ঋণ সুবিধা প্রদানের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়।

এ প্যাকেজের ঋণের সুদ নির্ধারণ করা হয় ৯ শতাংশ। এর মধ্যে সাড়ে ৪ শতাংশ গ্রাহক পরিশোধ করবে। বাকি সাড়ে ৪ শতাংশ গ্রাহকের পক্ষে সরকার ভর্তুকি হিসেবে দিবে। কিন্তু এ প্যাকেজের আওতায় বিতরণ করা ঋণের বিপরীতে ৯ শতাংশ সুদই গ্রাহকের হিসাবের বিপরীতে আরোপ করা হচ্ছে বলে এমন অভিযোগ উঠেছে। এর প্রেক্ষিতে নতুন সার্কুলার জারি করে বিষয়টি স্পস্ট করলো বাংলাদেশ ব্যাংক।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, কিছু কিছু ব্যাংক এ প্যাকেজের আওতায় বিতরণ করা ঋণের বিপরীতে গ্রাহকের হিসাবে ৯ শতাংশ সুদ আরোপ করছে। যার ফলে গ্রাহক আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com