রবিবার  ২৩শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং  |  ১১ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ  |  ২৮শে জমাদিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী

‘খালেদা জিয়ার এই মামলায় সাত দিনে জামিন হওয়ার কথা’

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এখন সরকারের হাতে। অন্যায়ভাবে তাকে গ্রেপ্তারের জন্য সরকারই দায়ী। এ ধরনের মামলায় সাত দিনের মধ্যে জামিন হওয়ার কথা। সাধারণ নাগরিকও সাত দিনে জামিন পায়। কিন্তু ওনাকে দু’বছর ধরে আটকে রাখা হয়েছে।

আজ বুধবার (১২ ফেব্রয়ারি) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে যৌথসভা শেষে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ফখরুল বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই জামিন পাওয়ার সাংবিধানিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে বিএনপি চেয়ারপানসনকে। সরকার সুপরিকল্পিতভাবে খালেদা জিয়াকে হত্যার জন্য কারাগারে আটকে রেখেছে। আমরা তাকে বাঁচাতে চাই। তার মুক্তির জন্য সাংবিধানিকভাবে যতরকমের চেষ্টা করার আমরা সবই করছি। আইনগতভাবেও যতরকম পথ আছে সবরকম চেষ্টা করে যাচ্ছি। তবে এটা আইনের মধ্যে নেই। সেজন্য জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তার মুক্তির জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

বিএনপির এ নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায় নয়াপল্টনে বিএনপি অফিসের সামনে থেকে প্রেস ক্লাব পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিল করবে বিএনপি। একই সময়ে সারাদেশেও বিক্ষোভের আয়োজন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান, ওলামা দলের আহবায়ক মাওলানা নেসারুল হক, মৎস্যজীবী দলের সভাপতি রফিকুল ইসলাম মাহতাব প্রমুখ।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

আপনার ইমেল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত *

*

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com