রবিবার  ২৫শে আগস্ট, ২০১৯ ইং  |  ১০ই ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ  |  ২২শে জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

ইইউ নির্বাচনে জিতলো কট্টর ডানপন্থী ব্রেক্সিট পার্টি

গণনা শুরু হতেই চমকের পর চমক ইউরোপীয় ইউনিয়ন পার্লামেন্টের ভোটে। যুক্তরাজ্যে লেবার ও কনজারভেটিভদের পিছনে ফেলে জয় পেয়েছে ব্রেক্সিট পার্টির নাইজেল ফারাজ। সেইসঙ্গে জোর ধাক্কা খেলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ। কট্টর ডানপন্থীরা জয় পেয়েছে ফ্রান্স, ইতালিতেও। বিবিসি।

রবিবার ব্রিটেনের সময় ভোর চারটে নাগাদ ভোটপর্ব শুরু হয় গ্রিস, হাঙ্গেরি, বুলগেরিয়া, রোমানিয়া, লিথুয়ানিয়া ও সাইপ্রাসে। স্থানীয় সময় অনুযায়ী একে একে ভোট শুরু হয় ফ্রান্স, জার্মানি ও ইতালির মতো অন্য দেশগুলিতেও। ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত না হওয়ায় এই ভোটে অংশ নিচ্ছে ব্রিটেনও। ব্রিটেনের স্থানীয় সময়মতে সন্ধে ছ’টা পনেরো নাগাদ ইউরোপীয় পার্লামেন্ট ভোটের প্রাথমিক ফলাফল জানা যায় । মূল ফলাফল আসতে শুরু করে রাত ন’টা থেকে।

ইউরোপের রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, এইবারে ভোটে লড়াই হচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সমর্থক দলগুলির সঙ্গে জাতীয়তাবাদী অতি-ডানপন্থী শক্তির। এই অতি ডানপন্থী শক্তির মধ্যে রয়েছে ইতালির উপপ্রধানমন্ত্রী মাত্তেও সালভিনি, ফ্রান্সের লি পেন এবং ব্রিটেনের ব্রেক্সিট পার্টির নাইজেল ফারাজ। এই অতিডানপন্থীদের আটকাতে লড়েছেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রঁ।
এই ভোটপর্বের মধ্যেই যথারীতি ইউরোপজুড়ে চলেছে প্রতিবাদ ও আন্দোলন। ব্রেক্সিট চুক্তি পাস না করাতে পেরে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে।

২৮টি দেশ মিলে গঠিত হয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ। এই নির্বাচনের মাধ্যমে সদস্যদেশগুলি ইইউ-র সংসদের নিজেদের দেশ থেকে নির্বাচিত সাংসদদের পাঠাবে। বিশ্লেষকদের মতে ব্রেক্সিট পার্টির নাইজেল ফারাজসহ অতি-ডানপন্থীদের উত্থান ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষে সুখবর নয়। এমনিতেই ব্রেক্সিটের ফলে জোর ধাক্কা খেয়েছে ইইউ।

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com