বুধবার  ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ  |  ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ  |  ১৬ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

‘আমি মুস্তাফিজের বিরাট ভক্ত, ও টেস্ট না খেলায় হতাশ’

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন বাংলাদেশের কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান। বায়ো বাবলের কারণে তিনি টেস্ট খেলতে আগ্রহী নন। যে কারণে লাল বলের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে নেই ফিজ। তবে মুস্তাফিজ যে টেস্ট খেলছেন না, তাতে হতাশ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের নয়া পেস বোলিং কোচ অ্যালান ডোনাল্ড।তিনি জানান, মুস্তাফিজ টেস্ট খেলছে না, এটি দুঃখজনক। যেকোনো দলকে একাই ধসিয়ে দেওয়ার সামর্থ্য আছে ফিজের।

২০১৫ সালের জুলাইয়ে চট্টগ্রামে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হয় মুস্তাফিজের। এর আগে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল। অভিষেক টেস্টের ইনিংসে ৩৭ রানে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন মুস্তাফিজ। এরপর টেস্টে ক্রিকেটে উইকেট শিকারে ধারাবাহিক হতে পারেননি। ২০২১ সালে এসে তিনি টেস্ট ক্রিকেট থেকে দূরে সরে যান। প্রায় এক বছরের বেশি সময় ধরে টেস্ট খেলছেন না এই বাঁহাতি পেসার।

সাদা পোশাকে মুস্তাফিজের না খেলা হতাশ করেছে ডোনাল্ডকে। ক্রিকবাজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই কিংবদন্তি পেসার বলেন, ‘আমরা শরিফুল, তাসকিন এবং এবাদতকে (টেস্ট ফরম্যাটে) পেয়েছি। হ্যাঁ, মুস্তাফিজ এখন টেস্ট দলের অংশ নয়। আমি আগেই বলেছি, এটা দুঃখের বিষয় যে মুস্তাফিজ আর টেস্ট ক্রিকেট খেলছে না। আজকাল খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত পছন্দ আছে। তারা একটি ফরম্যাটে পারদর্শী হতে পারে এবং বেশি অর্থ উপার্জনের জন্য টি-টোয়েন্টিতে আগ্রহী হয়। ‘

২০১৬ সালেই মুস্তাফিজকে বিশ্বের অন্যতম সেরা বোলার হিসেবে অভিহিত করেছিলেন ডোনাল্ড। সেই স্মৃতিচারণা করে তিনি বলেন, ‘আমি মুস্তাফিজের বিরাট ভক্ত।  ২০১৬ সালেই বলেছিলাম, সাদা বলের ক্রিকেটে যেকোনো ব্যাটিং লাইন আপকে সমস্যায় ফেলার জন্য ভয়ংকর কৌশল আছে তার। তাকে সহজে অনুমান করা যাবে না। আমি ফিজের সাথে কাজ করার জন্য উন্মুখ হয়ে আছি। সবাই মিলে আলোচনা করলে বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ নিয়ে আরো ভালোভাবে বোঝা যাবে। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমে এ নিয়ে কখনো আলোচনা হয়েছে কি না জানি না। ‘

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com