শুক্রবার  ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং  |  ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  |  ২৬শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী

অনন্ত জলিল-হিরো আলম শুটিং শুরু করলেন একই দিন

সোশ্যাল মিডিয়া থেকে রঙিন দুনিয়ায় বিচরণ, আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম যেন উড়ছেন। কোথাও থামছেন না কিংবা থামানোই যাচ্ছে না তাঁকে।

বগুড়ার মফস্বল এরুলিয়ার কেবল ব্যবসায়ী থেকে বিভিন্ন জনপ্রিয় গানের সঙ্গে নাচ, সেই নাচের ভিডিও নিজের কেবলে প্রচার। আর এ থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনা। এই সমালোচনা থেকেই আশরাফুল আলম ওরফে ডিশ আলম এখন হিরো আলম নামে পরিচিত। দেশের সীমানা পেরিয়ে তাকে নিয়ে ফুর্তি যেন একটু বেশিই হয়।

মূলধারার চলচ্চিত্র যখন মুখ থুবড়ে পড়ছে, সেই সময়টাতে বানিয়ে যাচ্ছেন চলচ্চিত্র। নিজের প্রযোজনায় তৃতীয় চলচ্চিত্রের কাজ শুরু করেছেন। যদিও হিরো আলমকে নিয়ে অনন্ত জলিল ঘোষণা দিয়েছিলেন চলচ্চিত্র বানাবেন। কিন্তু এক অজ্ঞাত কারণে হিরো আলমকে বাদ দিয়ে দেন। মান যা-ই হোক, হিরো আলম সেসবকে তোয়াক্কা না করে চলচ্চিত্র বানানো শুরু করেছেন।

আর হিরো আলম অনন্ত জলিলের সিনেমা থেকে বাদ পড়ার পর যে ছবিটির কাজ প্রথম শুরু করলেন ‘বউ-জামাইয়ের লড়াই’, সেদিনই অনন্ত জলিলের শুটিংও শুরু হলো মাত্র কয়েক কিলোমিটার দূরে। এদিন হিরো আলমের ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে ঢাকার অদূরে সাভারের ডিপজলের শুটিং বাড়িতে। একই দিন অনন্ত জলিলের নেত্রী দ্য লিডার সিনেমার শুটিং শুরু হয়েছে হেমায়েতপুরে অনন্ত জলিলের এজেআই পার্কে। এটি কোন লটের শুটিং জানা যায়নি, তবে কাল প্রথম লটের শুটিং শুরু হয়েছে।

হিরো আলমকে অনন্ত জলিল নিজের চলচ্চিত্রে নেওয়ার পর বলেছিলেন,  ‘হিরো আলম একটা পর্যায়ে চলে গেছে। তাকে তো আর ছোটখাটো চরিত্রে নেওয়া যাবে না। এখন আমি একটি যৌথ প্রযোজনার ছবি নিয়ে কাজ করছি। এতে অনেক ছোটখাটো চরিত্র রয়েছে। যেখানে হিরো আলমকে নিতে পারি না। সে যেহেতু একটা পর্যায়ে চলে গেছে, তাই তাকে আগামী ছবিতে বড় চরিত্রে নেব। আমি যেহেতু কথা দিয়েছি, অবশ্যই নেব।’

চলচ্চিত্রে বাদ প্রসঙ্গে হিরো আলম বলেন, চলচ্চিত্র প্রযোজক-পরিবেশক সমিতির সংবাদ সম্মেলনে আমাকে ডাকা হয়। সেখানে আমি সবার অনুরোধে কিছু কথা বলি। আমাকে বলা হলো জায়েদ খান ভাইয়ের সঙ্গে ক’দিন আগের দ্বন্দ্ব নিয়ে। আমি তেমন কিছু বলিনি। আমি শুধু বলেছি, আমি চলচ্চিত্রে কাজ করি; কিন্তু জায়েদ ভাই আমাকে চেনে না বলেছেন, এতে আমার দুঃখ লেগেছে।

আলম বলেন, ‘কেন কথা বললাম প্রযোজক সমিতিতে, ওই সব প্রযোজক কি তোমাকে ছবি দেবে? তুমি বেশি বোঝো কেন? তোমাকে জায়েদের বিপক্ষে কথা বলতে কে বলেছে? আমি তো তোমাদের মিটমাট করে দিয়েছি। তার পরও কেন তুমি কথা বলতে গেছ। তোমাকে আমার ছবিতে কাজ করতে হবে না। তুমি বাদ। আমি একটু পরে ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জানিয়ে দিয়েছি।’

হিরো আলমের নতুন ছবিতে অভিনয় করছেন চিত্রনায়িকা মুনমুন ও সাদিয়া। হিরো আলম বলেন, ‘ আপনারা জানেন, আমাকে একটি চলচ্চিত্রে নিয়েও বাদ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমি থেমে থাকি না, এটা দেখিয়ে দিয়েছি। আবার দেখাব ইনশাল্লাহ। ১০০ কোটির বাজেটের ছবির সঙ্গে আমার এই ক্ষুদ্র প্রযোজনা টেক্কা দিতে পারবে না- এটা ধরেই নিয়েছি। তার পরেও বলব, আমি এগিয়ে যেতে চাই। মুনমুন আপুকে নিয়ে এই ছবিটি করতেছি। ছবিতে পুরুষের ওপর নির্যাতনের চিত্র ফুটে উঠবে। এই বিষয় নিয়ে কেউ কথা বলে না, সবাই চুপচাপ থাকে। তাই আমি চেষ্টা করছি।’

আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলম ‘মার ছক্কা’ নামে একটি চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষিক্ত হন।

একটি প্রতি উত্তর ট্যাগ

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com